color-theory-HM-khalid

কালার থিওরী

কালার বা রঙ কি?
তার আগে আমাদের জানতে হবে কালার কি?
সহজ কথাই আমরা চোখে যা দেখি তাই কোনাে না কোনাে কালার। আসলে লাইট বা আলাের তরঙ্গ প্রবাহের কম্পাঙ্কের গতির উপর নির্ভর করে আমরা কি কালার দেখি। কম্পাঙ্ক সবচেয়ে কম হলে আমরা লাল রঙ দেখি আর সবথেকে বেশি হলে আমরা বেগুনি রঙ দেখি। বলা হয়েছে , আলাের তরঙ্গ প্রবাহের কম্পাঙ্ক ৪০০ মিলিয়নের চেয়েও বেশি আর এর মদ্ধেই আমরা সব কালার দেখতে পাই। এখন আমরা একটা নির্দিষ্ট কালার কিভাবে দেখি, ধরা যাক আপনার টেবিলের উপর একটা হলুদ কালারের কলম রয়েছে, সূর্যের আলােতে কিন্তু সবগুলাে কালার রয়েছে যা সেই কলমের উপর পড়ে এবং রিফলেক্ট হয়ে আপনার আমার চোখে আসে, কিন্তু আমরা শুধুহ হলুদ কালারটাই দেখতে কেনাে পাই ? কারণ সেই কলমে হলুদ কালারের কম্পাঙ্ক বা ফ্রিকুয়েন্সি সবচেয়ে বেশি।

নিচের চিত্রটি একটি কালার হুইল, যার মধ্যে ১২ টি কালার রয়েছে। মূলত প্রাইমারি কালার, সেকেন্ডারি কালার এবং tertiary (টারশিয়ারি) বা তৃতীয় পর্যায়ের কালার এর সমন্বয়ে এ হুইলটি তৈরী।

Primary colors:
এখানে যে বড় বৃত্ত গুলো রয়েছে তা হলো লাল ,নীল , হলুদ। এগুলো হচ্ছে প্রাথমিক কালার বা প্রাইমারি কালার। এ তিনটি কালার কে সোজা দাগ দিয়ে কানেক্ট করা হয়েছে। যে বৃত্ত গুলোর মধ্যে (P) অক্ষরটি রয়েছে সেগুলো প্রাইমারি কালার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *