হাতের লেখা সুন্দর করার উপায়

হাতের লেখা সুন্দর হলে পরীক্ষায় অধিক নম্বর পাওয়া যায়’- এ কথা অনেকেই মানেন। আসলেই কথাটি সত্য। হাতের লেখার ওপরেও অনেকক্ষেত্রে পরীক্ষায় অধিক নম্বর পাওয়া নির্ভর করে। ক্যালিগ্রাফি, লেটারিং ও টাইপোগ্রাফিতে ভালো করতে চাইলে হাতের লেখা সুন্দর হওয়া অপিরহার্য। প্রযুক্তি নির্ভরতার এই যুগে অনেকেই হয়তো সুন্দর হাতের লেখা নিয়ে মাথা ঘামান না তেমন। কিন্তু তাই বলে কি কমে গেছে এর আবেদন? একদম নয়। বিশেষ করে ছাত্রছাত্রীদের জীবনে এখনো এর গুরুত্ব অনেকখানি।  কীভাবে সুন্দর করবেন হাতের লেখা? আপনি নিজে নিজেই এটা করতে পারেন। প্রয়োজন, কেবল একটুখানি ইচ্ছে। আসুন, জানা যাক কলাকৌশল। প্রথমেই প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হোন–‘হাতের লেখা সুন্দর করবো।’এজন্য শুরুতেই দরকার একটি পছন্দসই নমুনা লেখা। যেটি অনুসরণ করে প্রতিদিন আপনাকে অনুশীলন করতে হবে। পরিচিত গণ্ডির যার হাতের লেখা সুন্দর তার কাছ থেকে দুয়েক পৃষ্ঠা লেখা নিন। মোটামুটি এক পৃষ্ঠার লেখাতেই সব অক্ষরই থাকে। আর কাছাকাছি কাউকে না পাওয়া গেলেও এখন গুগলে কিংবা কম্পিউটারের লেখার টুলসে নানারকম ফন্ট থাকে। সেখান থেকেও একটা নমুনা লেখা সংগ্রহ করে নিতে পারেন। আপনার সংগ্রহ করা লেখাটি অনুসরণ করে প্রতিদিন নিয়ম করে এক বা দুই পৃষ্ঠা লিখতে থাকুন। আপনি চাইলে নিম্মে দেয়া লেখাগুলোও অনুসরণ  করতে পারেন। বইয়ের লেখা গুলো লক্ষ্য করে একটু চেষ্টা করলেও হাতের লেখা সুন্দর করা সম্ভব। পৃষ্ঠা লিখতে থাকুন। আপনি চাইলে নিম্মে দেয়া লেখাগুলোও অনুসরণ  করতে পারেন। বইয়ের লেখা গুলো লক্ষ্য করে একটু চেষ্টা করলেও হাতের লেখা সুন্দর করা সম্ভব।

]হাতের লেখা সুন্দর করার উপায়:

১ লেখার সময় মনোযোগ সহকারে লিখতে হবে;

২ দ্রুত গতি নয়, লেখা সুন্দর করার প্রতি বেশি মনোযোগ দিতে হবে;

৩ লাইন সোজা রেখে লিখতে হবে;

৪ প্রতিটি অক্ষরের প্রতি নজর দিতে হবে

৫ প্রতিটি অক্ষরকে স্পষ্ট করে লিখতে হবে

৬ সুন্দর লেখা অনুকরণ বা অনুসরণ করতে হবে;

৭ নিয়মিত চর্চা বা অনুশীলন করতে হবে;

স্পষ্ট ও অস্পষ্ট লেখার পার্থক্য:

নিচের লেখাগুলো সুন্দর লেখার নমুনা হিসেবে নয়, স্পষ্ট ও অস্পষ্ট লেখার মধ্যে যে বড় ধরণের পার্থক্য রয়েছে তা বোঝানোর জন্যই দেয়া হলো।

2 Responses

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *